জাতীয় সংগীত (National Anthem) এবং এ সংক্রান্ত বিধিমালা

০১। জাতীয় সংগীত -অডিও (শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট থেকে) [From Intelligentsia own Database]


০২। জাতীয় সংগীত - মিউজিক (শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট থেকে) (From Intelligentsia Own database)


০৩। জাতীয় সংগীত - পাঠ (শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট থেকে) (পিডিএফ ডাউনলোড)

National Anthem-Final
.pdf
Download PDF • 371KB

জাতীয় সংগীত বিধিমালা ১৯৭৮ ডাউনলোড পিডিএফ কপি (পূর্ণাংগ)



জাতীয় সংগীত গাওয়ার নিয়ম


‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি...’—আমাদের জাতীয় সংগীত। আমাদের এক অস্তিত্বের নাম। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা ২৫ লাইনের এই গানের ১০ লাইনকে জাতীয় সংগীত হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। জাতীয় সংগীত গাওয়ার কিছু নিয়ম-কানুন রয়েছে। দেশে জাতীয় সংগীত বিধিমালা রয়েছে। ১৯৭৮ সালে এ বিধিমালা প্রণয়ন করা হয়। এ বিধিমালা মেনেই জাতীয় সংগীত গাইতে হবে।


[তথ্য সূত্রঃ প্রথম আলো ]


জাতীয় সংগীত গাওয়ার নিয়ম



বিভিন্ন দিবসঃ

জাতীয় সংগীতের পুরোটা সব অনুষ্ঠানে গাওয়ার নিয়ম নেই।

বিভিন্ন জাতীয় দিবস, যেমন একুশে ফেব্রুয়ারি, স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের শুরুতে ও শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পূর্ণ সংগীত বাজাতে হবে


স্বাধীনতা দিবসঃ

স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবসের প্যারেড অনুষ্ঠানে দুই লাইন শুরুতে বাজানোর নিয়ম রয়েছে


বিদ্যালয়ঃ

সব বিদ্যালয়ের দিনের কার্যক্রম জাতীয় সংগীত গাওয়ার মধ্য দিয়ে শুরু করতে হবে। বিদ্যালয়ের কার্যক্রমের আগে শুধু চার লাইন গাইলে হবে না। গাইতে হবে পুরো জাতীয় সংগীত।


রাষ্ট্রপতির ভাষণঃ

রাষ্ট্রপতির ভাষণ দেওয়ার উদ্দেশ্যে সংসদ ভবনে প্রবেশ করার শুরুতে ও শেষে পূর্ণ জাতীয় সংগীত বাজাতে হবে। রাষ্ট্রপতির ভাষণ যখন জাতির উদ্দেশে সম্প্রচার করা হয়, তখন সম্প্রচারের শুরু ও শেষে দুই লাইন বাজাতে হবে। রাষ্ট্রপতি যখন কোনো প্যারেডে সালাম গ্রহণ করেন, তখনো দুই লাইন বাজাতে হয়। তা ছাড়া রাষ্ট্রপতি যদি কোনো অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হন বা কোনো অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন অথবা প্রধানমন্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে স্বাধীনতা পদক প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকেন, তাহলে এসব ক্ষেত্রে তাঁদের আগমন ও প্রস্থানের সময় দুই লাইন জাতীয় সংগীত বাজানোর নিয়ম রয়েছে।


গার্ড অফ অনার

বিদেশি কোনো রাষ্ট্রপ্রধান বা সরকারপ্রধান তাঁর রাষ্ট্রীয় বা সরকারি সফরে বাংলাদেশে এলে তাঁকে গার্ড অব অনার প্রদান করার আগে জাতীয় সংগীতের প্রথম দুই লাইন বাজাতে হবে। এ ছাড়া কোনো বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধান, রাজপরিবারের সদস্য, রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার বা সমমর্যাদার কোনো বিদেশি রাষ্ট্রের প্রতিনিধি যখন রাষ্ট্রপতির সালাম গ্রহণ করেন, তখন দুই লাইন বাজাতে হবে।

সিনেমা হলঃ

সিনেমা হলে সিনেমা প্রদর্শনের আগে দুই লাইন বাজাতে হবে।


রেডিও টেলিভিশনঃ

রেডিও এবং টেলিভিশনের প্রতিদিনের কার্যক্রমের শেষেও দুই লাইন বাজানোর কথা বলা হয়েছে।



গাওয়ার সময় যা করতে হয় (সাধারণ নাগরিকদের জন্য)

জাতীয় সংগীত কোনোভাবেই ভুল গাওয়া যাবে না। একদম সঠিক উচ্চারণে এবং সুরে শুদ্ধ করে গাইতে হবে এবং গাওয়ার সময় এর প্রতি যথাযথ সম্মানও দেখাতে হবে। যখন জাতীয় সংগীত বাজানো হয় ও জাতীয় পতাকা প্রদর্শন করা হয়, তখন উপস্থিত সবাইকে জাতীয় পতাকার দিকে মুখ করে দাঁড়াতে হবে। যখন পতাকা প্রদর্শন না করা হয়, তখন সবাইকে বাদক দলের দিকে মুখ করে দাঁড়াতে হবে এবং কারও মাথায় টুপি থাকলে খুলে ফেলতে হবে। অনেককেই বুকে হাত রেখে জাতীয় সংগীত গাইতে দেখা যায়। এটি আসলে সঠিক নয়। জাতীয় সংগীত গাইতে হবে সোজা হয়ে দাঁড়িয়েসাধারণ নাগরিকদের বাইরে ডিফেন্স বা প্রতিরক্ষা বাহিনীর জন্য জাতীয় সংগীত গাওয়ার নিয়ম পৃথকভাবে বলা হয়েছে।

Recent Posts

See All

Video making and Sending Policy of ISC

ভিডিও নির্মাণ ও অফিস মেইলে প্রেরণ সংক্রান্ত ইন্টেলিজেন্টসিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজ এর নীতিমালা ইনটেলিজেন্টসিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজ এর ভিডিও ক্লাসের নির্মানের ক্ষেত্রে আইটি বিভাগের পক্ষ থেকে যে অনুরোধ জানা

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ব্যবহৃত নোটিশ /পত্র (পর্ব-০২)

প্রতিষ্ঠানের সেবাদানের উপর ভিত্তি একেক ধরনের প্রতিষ্ঠানে একেক ধরনের পত্র/নোটিশ লিখতে হয়। এগুলোর ভাষা এবং কাঠামোও ভিন্ন ভিন্ন হয়। একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কার্যক্রম সুষ্টুভাবে সম্পন্ন করার জন্য লিখিত পত

Theme Song_ISC
00:00 / 03:15