মাইক্রো টিচিং ম্যাথোডস -পর্ব ০৩ [কো-অর্ডিনেটর এর দায়িত্বঃ সহযোগী কলিগদের সহায়তা করা]

ইনটেলিজেন্টসিয়া প্রফেশানাল ডেভেলপমেন্ট একাডেমি (আইপিডিএ)

বনশ্রী, রামপুরা, ঢাকা-১২১৯

www.intellignetsiabd.org

তারিখঃ ১২-০৯-২০২০


পর্ব- ০৩

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একজন ইন-চার্জ বা কর্ড (কো-অর্ডিনেটর এর সংক্ষিপ্ত রুপ) এর ভূমিকা অনেক। একজন কর্ডকে যেমন দায়িত্ব বন্টন করে দিতে হয়, তেমনি, দায়িত্ব পালনের উপযোগী করেও জনশক্তিকে বা শিক্ষকদেরকে গড়ে তুলতে হয়। এজন্য একজন দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্ডকে প্রতিটি শিক্ষকের সাথে নিবিড় সম্পর্ক স্থাপন করতে হয়

একজন কর্ডকে প্রথমেই তার কার্যালয়ের/ইউনিটের/শাখার সকল শিক্ষকের সোট এ্যানালাইসিস (সক্ষমতা যাচাই) (SWOT- Strength Weaknesses Opportunity and Threat) করতে হয়, যাতে তিনি প্রতিটি কলিগের শক্তিশালী ও দূর্বল বিষয়গুলো জানতে পারেন।

একজন কর্ড তার দপ্তরের সকল শিক্ষকদের শক্তিশালী ও দূর্বল দিকগুলো জানতে পারলে তিনি তাদের সর্বোচ্চ সদ্ব্যবহার করতে পারবেন। যিনি যে বিষয়ে দক্ষ, তাকে সেই কাজের দায়িত্ব অর্পন করতে পারবেন। আবার, যার যে বিষয়ে দুর্বলতা রয়েছে, তার সেই বিষয়ের দূর্বলতা দূর করার পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারবেন।

কোন কাজের দায়িত্ব বন্টন করার পর একজন কর্ড তার সকল শিক্ষকের জন্য বিভিন্ন ধরণের ছক নির্মাণ করবেন, যাতে সে সকল ছক ব্যবহার করে দায়িত্ব প্রাপ্ত শিক্ষকরা সুন্দরভাবে কাজটি সম্পন্ন করতে পারেন।

আবার কখনো কখনো কর্ড কোন কাজ দেয়ার পর, যেই কাজটি কিভাবে সম্পাদন করা যায়, সে বিষয়ে দিক নির্দেশনা দিয়ে নীতিমালা বা গাইডলাইন প্রস্তুত করবেন। এই নীতিমালা বেশি বিস্তৃত হলে তাকে ছোট ছোট ইউনিটে বিভক্ত করবেন, যাতে শিক্ষকরা সহজে তা বুঝতে পারেন।


এ রকম নীতিমালা পড়ে অধিকাংশ শিক্ষকই তা বুঝতে পারবেন। তবে কিছু সংখ্যক তা বুঝতে নাও পারেন, বা বিষয়টি পুরোপুরি ক্লিয়ার নাও হতে পারেন। তাই, একে আরো বোধগম্য করার জন্য নিজেই একটি মডেল বা প্রতিরুপ তৈরি করবেন। এই মডেল দেখে যে কোন শিক্ষক বিষয়টি আরো সহজে বুঝতে পারেন।

আরো বেশি বোধগম্য করার জন্য একজন কর্ড প্রয়োজনে অন্য কারো সহযোগিতা নিয়ে একটি ভিডিও টিউটোরিয়াল প্রস্তুত করতে পারেন। এই ভিডিও টিউটোরিয়াল সংশ্লিষ্ট শিক্ষককে তার উপর অর্পিত দায়িত্ব সম্পাদনে আরো বেশি সহযোগিতা করবে।

এভাবে, একজন কর্ড/ইনচার্জ/ভিপি/প্রিন্সিপ্যাল হিসেবে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর তা বাস্তবায়নের দায়িত্ব বন্টন করে বসে না থেকে কিভাবে প্রত্যেক শিক্ষককে সহযোগিতা করা যায় তা নিয়ে সর্বক্ষণ ভাবতে হয়।

অনেক সময় একজন শিক্ষক কোন কাজ কিভাবে সম্পাদন করতে হয়, তা বুঝতে পারেন না। আবার এ বিষয়ে কারো সাথে শেয়ারও করেন না।

আবার, কখনো কখনো একজন শিক্ষক হয়তো মনে করেন যে, তিনি বুঝেছেন, কিন্তু আসলে ভুল বুঝতে পারেন। অথবা তিনি যা বুঝেছেন, তা ৩০%, ৪০%, ৭০%, ৮০%, ৯০% সঠিক হতে পারে, আর বাকি অংশ ভুল হতে পারে।

তাই, শেষ সময়ে একজন শিক্ষক তার কাজ জমা দেবেন সেজন্য অপেক্ষা না করে প্রদেয় কাজটিকে কয়েকটি ধাপে বিভক্ত করে ধাপে ধাপে তার অগ্রগতি ফলো-আপ করতে হবে, তার ফিডব্যাক নিতে হবে, এবং পরামর্শ দিতে হবে। এতে প্রত্যেকটি ধাপেই প্রয়োজনীয় ভুল সংশোধন করা যাবে, এবং শেষ পর্যন্ত একটি মানসম্পন্ন আউটপুট পাওয়া যাবে।


তাই,



· একজন কর্ড প্রথমে সকল শিক্ষককে কাজের দায়িত্ব প্রদান করবেন; 
· সেই কাজের জন্য নির্দেশনা বা গাইড লাইন প্রণয়ন করবেন;
· গাইডলাইন যাতে বুঝতে পারে সে জন্য একটি মডেল প্রস্তুত করে দেবেন;
· আরো ভাল ভাবে বুঝার জন্য একটি ভিডিও টিউটোরিয়াল প্রস্তুত করবেন;
· যে কাজ দেবেন, তাকে কয়েকটি ধাপে বিভক্ত করবেন;
· প্রত্যেকটি ধাপে ধাপে কাজের ফিডব্যাক নেবেন, যতটুকু সম্পাদন করেছেন, তা নিজে দেখে দেবেন। 
· ধাপে ধাপে ভুল সংশোধন করে দেবেন;
· যারা কাজটি ভালভাবে বুঝে বা সম্পাদন করে তাদেরকে নিয়ে উপস্থাপনা করা যেতে পারে। এতে অন্যরা উপকৃত হবে; 
· শেষ সময়ের জন্য অপেক্ষা না করে ভেঙ্গে ভেঙ্গে কাজের অগ্রগতির ফিডব্যাক নেবেন;
· কোন কাজ না বুঝলে সেই বিষয়ের উপর ওয়ার্কশপ করবেন। ওয়ার্কসপে অবশ্যই প্রত্যেক গ্রুপ বা শিক্ষকের উপস্থাপনা থাকতে হবে; অথবা সিনিয়র কারো সাথে পরামর্শ করবেন; 
অথবা বাইরের কোন এক্সপার্ট এর সহায়তা নেবেন; 
অথবা অনলাইন কোর্স করার মাধ্যমে বুঝার চেষ্টা করবেন; 
অথবা গুগলের হেল্প নিয়ে পড়ার এবং বুঝার চেষ্টা করবেন।

এভাবে কাজ করলেই একজন কর্ড/ইনচার্জ/ভিপি/প্রিন্সিপ্যাল এর সহযোগী শিক্ষকরা দক্ষ হয়ে উঠেন এবং সুন্দরভাবে তাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে সক্ষম হয়ে উঠে। এবং একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তার সকল দায়িত্ব সুচারুরুপে সম্পন্ন করতে পারে। 

Recent Posts

See All

একজন আদর্শ বাংলা শিক্ষকের যে সব গুণাবলি থাকা প্রয়োজন

গুণাবলিঃ শিক্ষক শব্দের আভিধানিক অর্থ শিক্ষা কারক,বিদ্যাগ্রহীতা। শিক্ষকের দায়িত্ব সমাজের আর দশজন কর্মীর চেয়ে স্বতন্ত্র এবং তাৎপর্যপূর্ণ। শিক্ষকতার প্রধান শর্তগুলো হচ্ছে- ১.শিক্ষকতা বৃত্তির প্রতি প্রীতি

Theme Song_ISC
00:00 / 03:15